Jexca Blogs

‘দলের প্রত্যেকেই একেকজন অধিনায়ক’

Posted on Motivation @2016-02-17

ছেলেদের দলের মতো সাফল্য-রঙিন সময় কাটছে না। তবু স্বপ্ন আছে মেয়েদের ক্রিকেট দলেরও। কিউটের টিম স্পনসরশিপে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের জার্সি পাওয়ার দিনে অধিনায়ক জাহানারা আলম জানালেন সেই স্বপ্নের কথাই.

 

দ্বিতীয়বারের মতো টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলবে বাংলাদেশ মহিলা দল আপনাদের লক্ষ্য কী থাকবে?
জাহানারা আলম: আমরা যখন প্রথমবার বিশ্বকাপ খেলেছিলাম, তখন স্বাগতিক হিসেবে খেলেছিলাম। আর এবার নিজস্ব যোগ্যতায় বাছাইপর্ব পেরিয়ে বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পেয়েছি। আমরা অনেক আত্মবিশ্বাসী। আমাদের লক্ষ্য র‍্যাঙ্কিংয়ে ৭-৮ এর মধ্যে থাকা। আমরা আমাদের লক্ষ্যে পৌঁছার জন্য সব চেষ্টাই করব।
পাকিস্তান সফরের পর আপনারা কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেননি ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতায় ঘাটতি থেকে যাচ্ছে না তো?
জাহানারাএটা ঠিক যে শুধু অনুশীলনই যথেষ্ট নয়। ম্যাচ খেললে দিনে দিনে উন্নতি হওয়া উচিত বা হয়ে থাকে। তবে এটাকে আমি ঘাটতি বলব না। আমরা অনুশীলনের জন্য ভালো সুযোগ-সুবিধা পেয়েছি। সামনে নিজেদের মধ্যে অনুশীলন ম্যাচ খেলব, বিশ্বকাপের আগে দুটি অনুশীলন ম্যাচ আছে আমাদের। আমি মনে করি বিশ্বকাপের আগে এটা যথেস্ট। আমাদের অনুশীলন ভালোই হচ্ছে। আশা করি এই উন্নতির লক্ষণটা বিশ্বকাপে দেখাতে পারব।

ম্যাচ কম খেলায় কোনো আক্ষেপ আছে?

জাহানারা: আসলে আমরা র‍্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষ আটের মধ্যে না থাকায় আইসিসির অধীনে সেভাবে ম্যাচ পাই না। বিসিবি অনেক চেষ্টা করেছে ম্যাচ আয়োজন করার জন্য। কিন্তু অন্যান্য ক্রিকেট বোর্ড অন্যান্য দলগুলোর সঙ্গে আগে থেকেই সম্পৃক্ত হয়ে আছে। কাজেই আমাদের কিছুই করার নেই। এটা আমাদের ধরাছোঁয়ার বাইরে। এবার তাই চেষ্টা করতে হবে র‍্যাঙ্কিংয়ে ওপরে উঠে আইসিসির অধীনে ম্যাচ খেলার জন্য।

সাম্প্রতিক সময়ে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অনেক সাফল্য পাওয়ায় ছেলেদের দলের কাছে প্রত্যাশাও সবার বেশি সে তুলনায় মেয়েদের দলের কাছে প্রত্যাশা কিছুটা কম থাকাটা কি আপনাদের নির্ভার ক্রিকেট খেলার সুযোগ করে দিচ্ছে?

জাহানারা: আসলে ছেলেদের দল বা মেয়েদের দল একই কথা। বাংলাদেশের সবারই প্রত্যাশা—ছেলেদের দল, মেয়েদের দল ভালো ফলাফল নিয়ে আসুক। আমাদের কাছে সবার চাওয়া যেন ভালো ক্রিকেট খেলে আসি, ভালো কিছু অর্জন করে নিয়ে আসি। আমাদেরও বিশ্বাস, এবার অনেক ভালো ক্রিকেট খেলব এবং অনেক ভালো কিছু অর্জন করব।

গতবার সালমার নেতৃত্বে আপনি ছিলেন বিশ্বকাপ দলের একজন খেলোয়াড় এবার আপনি নিজেই অধিনায়ক অনুভূতিটা কেমন?

জাহানারা: অবশ্যই অনেক ভালো অনুভূতি। বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করতাম একজন খেলোয়াড় হিসেবে, এবার অধিনায়ক হিসেবে খেলব। তারপরও আমার ওপর অতিরিক্ত কোনো চাপ নেই। আমি মনে করি, দলের সিনিয়র খেলোয়াড় প্রত্যেকেই একেকজন অধিনায়ক। তবে একটা দলকে কাউকে না কাউকে নেতৃত্ব দিতে হয়, সঠিক সময় সঠিক দিকনির্দেশনা দিতে হয়—এটার জন্যই আমি। সবাই অনেক সাহায্য করছে, আশা করি ভবিষ্যতেও করবে। আমি সবার সমর্থন পাব।

 

Posted by : ()

comments

Login to make comments.



Designed & Developed by Exponent Solution Limited ™